ধর্মপাশায় শুকিয়ে গেছে নদী, জেলে পরিবারে হাহাকার

0
25


saifullah.dp pic (2)সাইফ উল্লাহ, ধর্মপাশা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের হাওর অঞ্চল ধর্মপাশা উপজেলায় শুকনো মৌসুম আসতে না আসতে শুকিয়ে গেছে প্রাকৃতিক মাছের উৎস নদী-নালা, খাল বিল। মাছের উৎস শুকিয়ে যাওয়ায় উপজেলায় প্রায় ৫ হাজার জেলে পরিবারে চলছে চরম দুদিন। সরেজমিনে জানা যায়, উপজেলায় প্রায় ৩৭ টি ইজারাকৃত জলমহাল রয়েছে। এই সব জলমহাল থেকে জেলেরা মৎস শিকার করে জীবিকা নিরবাহ করে, পানি শুকিয়ে যাওয়ার কারণে জেলে পরিবারের সদস্যদের দিনরাত কাটছে অনাহার অদ্যাহারে। তাদের অনেকে জানান, প্রাকৃতিক উৎসগুলোতে মাছ শিকার করে বিক্্রয় টাকায় জেলে পল­ীর বাসিন্দাদের পরিবার চলে। পানি শুকিয়ে যাওয়ায় মাছ শিকার না করায় ধর্মপাশা উপজেলার মধ্যনগর, উত্তর বংশিকুন্দা, চামারদানী, দক্ষিণ বংশীকুন্দা, সেলবরষ, পাইকরাটি, দুগনই, হিজলা, রাজাপুর, বড়ই, দৌলতপুর, সুখাইর উত্তর, সুখাইর দক্ষিণ, খলাপাড়া, পাচাম, জয়শ্রী, সলপ, বীর, মাইজবাড়ী, চকিয়াচাপুর, বালিজুরী, সশিয়াম, মির্জাপুর, গাবী, ভাটাপাড়া, আসামপুর, রহুয়া, মাসকান্দা, রংপুর, আবিদনগর, স্বরসতিপুর, বানরসিপুর সহ প্রায় পাঁচ হাজার পরিবার চরম কষ্টের মধ্যে জীবনযাপন করছেন। এসব পল­ীর বাসিন্দা মলয়, শিবু, স্বপন, অসিত, কাচাঁ মিয়া, আবুচাঁন, জয়নাল, জানে আলম সহ অনেকেই জানান মাছ শিকার প্রধান উৎস ছিল হাসুয়া, টগা, কংস নদী, হাঁস কুড়ি, কালিজানা, সুনইনদী, জালধরা, গোরমা, কালাহানি, ধানকুন্না, ধানাম, মনাই নদী সহ স্থানীয় বিভিন্ন নদ-নদী ও খাল-বিল। এখন এই সকল উৎসগুলোর অধিকাংশই পানি শুন্য হয়ে পড়ায় মাছের দেখা মিলছে না। এতে  জেলে পরিবার গুলোকে এখন অভাবের সঙ্গে সংগ্রাম করে বেঁচে থাকতে হচ্ছে।



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here